Breaking News

রুমমেট – সৌমেন ঠাকুর

রুমমেট
– সৌমেন ঠাকুর

প্রথম প্রথম ভেবেছিলাম সম্পূর্ণটাই আমার মনের ভুল । বন্ধুদের বলতে ওরা তো হো হো করে হেসে উঠেছিল। একজন ডাক্তার দেখালে ডাক্তারবাবু কিছু ওষুধ প্রেসক্রাইব করে দিয়ে রেস্ট নিতে বললেন । কিন্তু ভয়টা কোনো ভাবেই কাটিয়ে উঠতে পারছিলাম না।

মাস তিনেক ধরে আমার কেবলই মনে হচ্ছে এই ফ্ল্যাটে আমি একা নই , আমার সঙ্গে আরো একজন বাস করে। আমি সর্বক্ষণ তার অস্তিত্ব টের পাই। বেডরুমে থাকলে মনে হয় কিচেনে কেউ আছে… কিচেনে থাকলে মনে হয় বেডরুমে কেউ চলাফেরা করছে… বাথরুমে কেউ শাওয়ার চালিয়েছে । ঘরের জিনিসপত্র যেমন টিভির রিমোট, নিউজ পেপার, রান্নার সামগ্রী , জলের বোতল , গল্পের বই আমি কোথাও রাখলে পরক্ষনেই দেখি তা সেখানে নেই । অথচ ফ্ল্যাটের দরজা আমি সবসময় লক করে রাখি তাই বাইরে থেকে কারো এখানে আসাও অসম্ভব ।

সেদিন রাতে ঘুম না আসায় বিছানায় শুয়ে শুয়ে একটা বই পড়ছিলাম। একটু একটু করে রাত গভীর হলো । হঠাৎ আমার কেমন একটা অদ্ভুত অস্বস্তি শুরু হলো । আধো অন্ধকার ঘরে বিছানায় আমার পাশ থেকে কেউ কি উঠে গেল ? কিন্তু নাহ… ঐতো দরজা তো বন্ধ! হয়তো সবটাই মনের ভুল । একা থাকার স্ট্রেসের কারনেই হয়তো… । কিন্তু পরক্ষনেই একটা অস্বাভাবিক শব্দ শুনে ড্রয়িংরুমে এসে কাউকে দেখতে না পেয়ে আবার ঘরে ঢোকা মাত্রই আমার গায়ের রক্ত হিম হয়ে গেল। দেখলাম আমার বিছানায় ঠিক যেখানে আমি শুয়ে শুয়ে বই পড়ছিলাম সেখানে অন্য একজন শুয়ে মুখের সামনে আমার বিছানায় রেখে যাওয়া বইটা ধরে আছে । আর না… আর এক মুহূর্ত এখানে থাকা চলবে না । আমি ফ্ল্যাটের সদর দরজা খুলে সিঁড়ি বেয়ে যত দ্রুত সম্ভব নিচে রাস্তায় এসে দাঁড়ালাম । ভয়ে আমার সারাটা শরীর থরথর করে কাঁপছে।

ল্যাম্পপোস্টের নিচে দাঁড়িয়ে ভয়ে ভয়ে নিজের ফ্ল্যাটের দিকে তাকাতেই চমকে উঠলাম… একি ? এ কি দেখছি আমি ? রাস্তার ল্যাম্পপোস্টের একফালি আলো গিয়ে পড়েছে আমার ফ্ল্যাটের জানলায় । আর সেই আলোয় দেখলাম জানলায় দাঁড়িয়ে আছে একটা ছায়ামূর্তি… তার মুখ চোখ হাত পা সব আমার মতো… আমার মতো কি বলছি… ঠিক যেন আরেকটা আমি । গলাটা শুকিয়ে কাঠ হয়ে গেল। আমি ভয়ে দু হাত দিয়ে চোখ-মুখ চেপে ধরলাম । মানুষের মন বড়োই কৌতুহলী তাই ঐ ভয়ঙ্কর মুহূর্তেও মনে হলো আরেকবার তাকিয়ে দেখি হয়তো সবটাই মনের ভুল । ধীরে ধীরে হাতটা চোখের সামনে থেকে সরিয়ে তাকাতেই ভয়টা বহুগুণ বেড়ে গেল। এ কীভাবে সম্ভব ? দেখলাম আমি দোতলায় আমার ফ্ল্যাটের জানলার ধারে দাঁড়িয়ে আছি , আর আমার সামনে… নীচে রাস্তায় ল্যাম্পপোস্টর নীচে ঠিক আমার মতো দেখতে অন্য আমিটা দাঁড়িয়ে আমার দিকে তাকিয়ে আছে । আমি পাগলের মতো নিজেকে বোঝানোর চেষ্টা করলাম সবটা মনের ভুল , স্বপ্ন! অবশ্য স্বপ্ন যে আমি দেখছি না তা আমার ডানহাতের আঙুলের রক্তই বলে দিচ্ছে । একটু আগে দৌড়ে নিচে নামার সময় নিচের কলাপসিবল গেটে আমার আঙুলটা কেটে গিয়েছিল।

©️ Soumen Thakur

Check Also

বলৎকার – লাজ্বাতুল কাওনাইন

বলৎকার – লাজ্বাতুল কাওনাইন ঢাকা থেকে নরসিংদী এর দূরত্ব আসলে ট্রেনে তেমন কিছুই না। ইচ্ছে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।