আপনার লেখা প্রকাশিত হলে তার লিংক সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন...।
এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব্য, ছবি বা যাবতীয় কার্যকলাপের আইনগত দায়দায়িত্ব নবদিবাকর পত্রিকা বহন করে না...।

মিল অমিল - আর্যতীর্থ

। মিল অমিল।

বন্ধু করেন সন্দেহ ঘোর লেখার ভালোমন্দ নিয়ে,
বলেন কি সব রদ্দি লেখো আদ্যিকালের ছন্দ দিয়ে
মিল দেওয়া যে অমিল এখন, তাও দেখোনা, অন্ধ কি হে?

আমি বলি জানোই তো হে, কলপ করা পক্ককেশ
যতই আমি নবীন সাজি আসলে তো বৃদ্ধ বেশ।
এই বয়েসে ছাড়া কঠিন মিল দেওয়ার এই বদভ্যেস।

বন্ধু বলেন বন্ধ করো ছন্দ তোমার বাঁধাধরা
এই ছাইপাশ পড়বে না হে একশত ভাগ শতকরা
জেনে রাখো মিল দেওয়াকে ব্যঙ্গ করে বলে ছড়া।

ছড়ার কথা কানে যেতেই অমনি মাথায় ঠেকাই হাত
ছড়া বড় কঠিন লেখা, লিখতে মাথায় বজ্রাঘাত
এই সম্মান দিলেন যাঁরা, তাঁদের করি প্রণিপাত।

বন্ধু বলেন হতাশ হয়ে, ছাড়বে না এই মিলের রোগ?
বোকার মতো সইবে তবে গালি খাবার দুঃখভোগ?
আমি বলি, দোষটা আমার, স্বীকার করি অভিযোগ।

মিল বা অমিল বিবেচ্য নয়, আসল ব্যাপার কাব্য
মননে যা মন ভেজাবে, কানেও হবে মোহন শ্রাব্য
ওঁরা ভাবুন ওঁদের মতো, আমি নাহয় অন্য ভাববো।

আর্যতীর্থ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[disqus][facebook]

Social

{facebook#https://facebook.com}

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget