আগস্ট 2014

রঙীল পাখি
- প্রদীপ ঘড়া

স্মৃতির দিন গুলো এখনো স্পষ্ট
যদিও সাজানো নয় এলোমেলো
কখনো সাদা খাতায়
কালির আঁচড়
কখনো ফাগুন দিনে
বসন্তের বিকেলে
কদম কদম চলি
ঝরা বর্ষায় আলতো ভিজে
দুজনে হাসি
সীমাহীন সীমানা পেরিয়ে
স্মৃতি নিয়ে বাঁসা বাঁধে
কমল রেনুর
কমলিকার ভেজা নয়নে
রঙীন পাখি
একদিনের সাঁঝ বেলাতে
বন্ধন দিলো ভেঙে
এই অবুঝ মনের
সবুজ স্বপ্ন মহলকে ।

নির্বাক কলি
- প্রদীপ ঘড়া

আজ এ সুন্দর সুপ্রভাতের হাওয়াতে
মনের ভেতর কম্পন দিয়ে
জানিয়ে তোলে রক্ত শিরাকে
নিস্তব্ধ নীরবতার মাঝ থেকে
কোলাহল শুধু কানে বাজে
নির্বাক হয়ে তাকিয়ে থাকা মেয়েটি
বাক্য খুঁজছিল
ও পুষ্প কলির মাঝে
চরন তাহার লপেট
রাঙা ও আলতাতে
লুকিয়ে থাকা আঁচল তাহার মাটিতে
স্বপ্ন বন্ধু ধরা দিয়েছিল একরাতে ।
জানা - অজানাকে সরিয়ে
মেলেছিলো নয়ন তাহার নয়নে
পুষ্প দুটি ছড়ায়ে
উড়ে এসে হাওয়ার টানে
পড়ল মেয়েটির রাঙা দুটো চরনে
হাতে তুলিয়া
বাক্য তাহার এসেছে ফিরিয়া ।

প্রার্থনা
- প্রথম দাস

দাদা ভাই আমি চুল - দাড়ি রেখে
ঠাকুরের কাছে করেছিলাম প্রার্থনা ।
তবুও আমি কমাতে পারিনি
ভাইঝির পায়ের যন্ত্রনা ।
এটাই আমার দুঃখ
আমি ভাইঝির খুব ভক্ত ।
ওর জন্য দিতে পারিনি দু ফোঁটা লাল রক্ত
চোখেরই সামনে ভাইঝির একটি পা হয়ে গেল নষ্ট ।
এটাই আমার জীবনের সবচেয়ে বড় কষ্ট
আপনারা আশীর্বাদ করুন ভাইঝির জীবনটা যেন না হয় নষ্ট ।
লেখাটির উপরে আছে ভাইঝির ছবি
আমি কাকা, নইকো আমি বড় কবি ।

সাদা কালো
- প্রদীপ ঘড়া

স্বপ্ন সাজানো অনেক
কেহই বা রঙীন
কেহই বা সাদা কালো
ফুল ফুটে আছে
এই মনের বাগানে
ধরা দিয়ে পাপড়ি খুলে
সরে গেল বাগান হতে
রঙীল স্বপ্ন মনে দিয়ে
সরে গেল সাদা কালো
শ্রাবণের বর্ষা হয়ে
ঝর্ণা হয়ে বয়ে গেল
কেহই তাকে দেখলো না
আয়নায় দেখে রঙীন স্বপ্নকে
ভেবে নিল
নদীর বুকে ঢেউ এসে
সরে গেল এক কনা বালি হয়ে ।

একা নও তুমি
- প্রদীপ ঘড়া

ক্ষনে ক্ষনে জাগি
আপন মনে ।
ধরণি ধরতি তলে
পুষ্প খেলে ঝলমলিয়ে ।
প্রজাপতি ভ্রমরের কুঞ্জনে
রাঙা উড়ে ধরতি তলে
পাগল পবনে ।
টানা কাজলা নয়নে
ঝর্নার বারি ঝর ঝরিয়ে
টেনেছে দুঃখ নিকট হতে
কখন ওই ম্লান হাসি দেখে
অনেক সুর বেজেছে কিনার তালে ।
পাগল হয়ে ফাগুন দিনে
মিটি মিটি তারা জ্বলে
জ্যোৎস্না - জোনাকির সাথে
এই ভাবে কত রাতের সঙ্গী
একা নও তুমি ধরতি তলে
ক্ষনে ক্ষনে জাগি
আপন মনে ।

অস্থির মন
- প্রদীপ ঘড়া

বিলম্বে অস্থির হত মন
ছোঁয়া লাগেনি তখন
"প্রভাত শিশির ছড়ায় ভুবনে
স্বপ্ন মগনে আদরের আড়ি
সে কখনো আসেনি মোর বাড়ি"
ঝল মলানো রবির কিরণে
ছোঁয়া লাগে মনে আলতো - শীহরনে
দৃষ্টি এড়িয়ে - যাবে কোথায়
কোন ধরাতলে ।
স্বপ্ন তাকায় তোমারে
মন প্রান্তে কল্পনায় নয়
স্বপ্নে ছুঁয়েছি তোমারে
ওই প্রভাত শিশির স্পর্শে
বিলম্বে অস্থির হত মন ।

নীল শায়র
- প্রদীপ ঘড়া

অনেক শায়র এই পৃথিবীর বুকে
আমার বাড়ির পশ্চাতে আছে একটি শায়র
চারিদিক বৃক্ষ আর তৃনতে ঘেরা !
মাছরাঙা...
শুধু মাছরাঙা নয়
অনেক পাখির ও কলরব
আর গাছের ফাঁক দিয়ে উঁকি মেরে সূর্য
ছিটিয়ে পড়ে জলের মাঝে
তরল সোনার মত সেই রুপ ঝকঝকে !
কখনো মৃদু শীতল বাদল
গাছ আর জলের সংস্পর্ষে
আদরে অবশ করে এই শখের অঙ্গকে
সারাদিন হই - হুল্লোড়ে ওই শায়র
ভাঙা ভাঙা ঢেউ গুলোয় মাছের কলতানি
পদ্মের পাতায় নেই জলের পরশখানি
দারুন শোভায় নীল পদ্ম
এইতো আমাদের পদ্মের নীল শায়র ।

Social

{facebook#https://facebook.com}

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget